Tuesday

JSC Result 2018 | JDC result 2018 | JSC and JDC result 2018


JSC and JDC
গত ১ নভেম্বর এ পরীক্ষা শুরু হওয়া জুনিয়র স্কুল সার্টিফটকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফল আগামী ২৪ ডিসেম্বর প্রকাশ করা হবে। আজ মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর, ২০১৮) এ তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক।

এ বছর জেএসসি এবং জেডিসি পরীক্ষায় সারা দেশ থেকে ২৯ হাজার ৬৭৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট পৌনে ২৭ লাখ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়।

Looking for JSC and JDC examination results for the year 2018?? Then Education Notice is the right place for you. Get the entire information on JSC and JDC Result 2018 here; such as publish date, where and how to check the results etc. Now-a-days with the advent of internet and smart mobile phones checking the results have become very easy in just few minutes along with all the details related to it. So, students don’t have to worry about the JSC and JDC result 2018. Just go through the following to know more about it.

Sunday

88th IBB Banking Diploma Exam Result | IBB Diploma Result, December 2018

IBB Bangladesh
Background of IBB: A number of eminent bankers and other professionals, in 1972, decided to establish the Institute of Bankers, Bangladesh (IBB), as a professional body of banks and financial institutions in Bangladesh. The IBB was registered on 6 February, 1973.

The Institute of Bankers, Bangladesh (IBB) will publish the Results of 88th Banking Diploma Examination i.e. held on November & December, 2018. The IBB will also publish Bank wise individual result of 88th Banking Diploma Examination which was held on November & December 2018. Please Click IBB for Results of 88th Banking Diploma Examination.

Please keep in touch with Education Notice to get Results of 88th Banking Diploma Examination, December 2018. We will publish the result here with in next two months.

10 wrong ideas about the BCS | BCS Examination

Bangladesh Govt. Logo
বিসিএস নিয়ে প্রচলিত ১০ ভুল ধারণা নিচে তুলে ধরা হলঃ

১. বিসিএস একটি মুখস্থনির্ভর সাধারণ জ্ঞানের পরীক্ষামাত্র।
২. পরীক্ষার আগে মাস কয়েক পড়লেই ক্যাডার হওয়া যায়।
৩. বিসিএসের প্রস্তুতি মানেই একাডেমিক পড়াকে ছুটিতে পাঠানো।
৪. শুধু ভালো কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাই বিসিএসে টেকে।
৫. ভাইভা বোর্ডেই ক্যাডার নির্ধারণ করা হয়ে যায়।
৬. বিসিএস ক্যাডার হতে সহশিক্ষা কার্যক্রমের কোনো প্রয়োজন নেই।
৭. বিসিএসের রেজাল্ট হওয়ার পরপরই সবাই চাকরিতে যোগদান করে।
৮. প্রথম বিসিএসেই ভালো ক্যাডার পাওয়া যায় না।
৯. অনৈতিক উপায় অবলম্বন না করে বিসিএস ক্যাডার হওয়া যায় না এবং
১০. বিসিএস ক্যাডার হওয়ার উদ্দেশ্যই হলো ঘুষ খেয়ে বড়লোক হওয়া।